বাংলার প্রস্তুতি

54
bangla
বাংলা

পাঠ্যবইয়ের অনুচ্ছেদ: হাতি আর শেয়ালের গল্প

প্রিয় শিক্ষার্থী, প্রশ্নকাঠামো অনুসারে বাংলা বিষয়ের প্রশ্নপত্রে ৬, ৭, ৮ ও ৯ নং প্রশ্ন থাকবে পাঠ্যবই সংশ্লিষ্ট গদ্যাংশের অনুচ্ছেদ/কবিতাংশ থেকে। আজ থাকছে গদ্যাংশের অনুচ্ছেদ সম্পৃক্ত প্রশ্নোত্তর।

প্রদত্ত অনুচ্ছেদ পড়ে ৬, ৭, ৮ ও ৯ নং ক্রমিকের প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও:

একদিন বন থেকে তাড়া খেয়ে মস্ত একটি হাতি ঢুকে পড়লো অন্য একটি বনে। হাতিটার সে-কী বিশাল শরীর। হাতিটা এমন ভাব করতে শুরু করল, সেই বুঝি বনের রাজা। শক্তিধর সিংহও হাতিটার কাছে আসতে ভয় পায়। হালুম বাঘ মামাও হাতিটার ধারে-কাছে ঘেঁষতে চায় না। একদিন নিরীহ একটা হরিণকে শুঁড়ে পেচিয়ে ছুঁড়ে ফেলে দিল দূরে। ক্ষুদ্র এবং নিরীহ প্রাণীর ওপর শুরু হলো অত্যাচার। দিনে দিনে হাতিটা হয়ে উঠল আরও দুর্বিনীত আরও অহংকারী। হাতির এমন অত্যাচারে বনের সব প্রাণী শঙ্কিত এবং অতিষ্ঠ হয়ে উঠল। অবশেষে বনের সবচেয়ে চালাক প্রাণী শেয়ালের ওপর পড়ল দুষ্টু হাতিকে শিক্ষা দেওয়ার দায়িত্ব। যা করার সে-ই করবে। দিন আসে দিন যায়। একদিন শেয়াল ভয়ে ভয়ে হাজির হলো হাতির আস্তানায়। সালাম দিয়ে বলল, আপনিই তো বনের সবচেয়ে শক্তিশালী প্রাণী। আপনি আমাদের রাজা, সবাই এ কথা জানে। আপনাকে রাজা হিসেবে সবাই বরণ করে নিতে চায়। ওই দেখুন, নদীর ওপাড়ে সবাই উদগ্রীব হয়ে বসে আছে। হাতি শেয়ালের কথা শুনে মহাখুশি। নদীর পারে এসে শেয়াল বলল, এই আমি নদী সাঁতরে পার হচ্ছি। আপনিও আসুন। নদীর তীর ছিল বালুকাময়। যেই না হাতিটা নদীর পানিতে পা দিয়েছে অমনি তার ভারী শরীর একটু একটু করে তলিয়ে যেতে থাকল।

 

৬। সঠিক উত্তরটি উত্তরপত্রে লেখো:

১) বিশাল শরীর কোন প্রাণীর?

ক. মানুষ খ. শেয়াল গ. ভালুক ঘ. হাতি

২) কার ভাব ভঙ্গিমায় ফুটে উঠল সে বনের রাজা?

ক. সিংহ খ. বাঘ গ. শেয়াল ঘ. হাতি

৩) বনের রাজত্ব ছিল কাদের হাতে?

ক. পশুদের খ. পাখিদের গ. মানুষের ঘ. হাতিদের হাতে

৪) বনের সবচেয়ে চালাক প্রাণী কে?

ক. হাতি খ. শেয়াল গ. পিঁপড়া ঘ. হরিণ

৫) দুষ্টু হাতি কার কাছে শিক্ষা পেল?

ক. শেয়ালের কাছে খ. মানুষের গ. হরিণের কাছে ঘ. বানরের কাছে

৬ নং প্রশ্নের উত্তর:

১) ঘ. হাতি ২) ঘ. হাতি ৩) ক. পশুদের হাতে ৪) খ. শেয়াল

৫) ক. শেয়ালের কাছে

৭। প্রশ্নের উত্তর লেখো:

ক. হাতির কী শিক্ষা হলো?

খ. বনের পশুরা সবাই শঙ্কিত কেন?

গ. ‘দিনে দিনে হাতিটা হয়ে উঠল আরও দুর্বিনীত’—বুঝিয়ে লেখো।

৭ নং প্রশ্নের উত্তর:

ক.

হাতিটা ছিল অত্যাচারী। শেয়ালের কথায় হাতিটা নদীর দিকে পা বাড়াল। কিন্তু নদীর চোরাবালিতে আটকে হাতিটা পানিতে ডুবে গেল।

খ.

একদিন অন্য বন থেকে একটি হাতি এসে বনে প্রবেশ করল। হাতিটার শরীর ছিল বিশাল। বনে প্রবেশ করেই হাতিটা তার শক্তির অহংকার দেখাল। একদিন শুঁড়ে জড়িয়ে একটা হরিণকে ছুঁড়ে ফেলে দিল। হাতিটার এ রকম অত্যাচারের কারণে বনের পশুরা শঙ্কিত হলো।

গ.

অনেক দিন আগে তাড়া খেয়ে একটা হাতি অন্য একটা বনে প্রবেশ করল। তার শক্তিও ছিল অনেক। কিন্তু হাতিটা ছিল অহংকারী আর অত্যাচারী। বনে ঢুকেই হাতিটা তোলপাড় শুরু করল। বনের প্রাণীরা সবাই ভয়ে শঙ্কিত হলো। তাই ভয়ে বনের প্রাণীরা হাতিটার কাছে যায় না। পশুরা তাকে সমীহ করে। এ সুযোগে হাতিটা আরও দুর্বিনীত হয়ে উঠল।

৮। প্রদত্ত অনুচ্ছেদটির মূলভাব লেখো:

৮ নং প্রশ্নের উত্তর:

বনে সব প্রাণী শান্তিতেই ছিল। হঠাত্ এক বিশাল হাতি এসে বন কাঁপিয়ে তুলকালাম বাঁধায়। হাতির অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে ওঠে সবাই। বনের সবাই হাতিকে শায়েস্তা করার দায়িত্ব দিল শেয়ালকে। শেয়াল বুদ্ধি করে নদীর চোরাবালিতে হাতিকে ফেলে দিল।

৯। শব্দার্থ লেখো।

ক. অতিকায় খ. শঙ্কিত গ. অতিষ্ঠ ঘ. নিরীহ ঙ. সভা

৯ নং প্রশ্নের উত্তর:

ক. অতিকায়— প্রকাণ্ড দেহবিশিষ্ট; খ. শঙ্কিত— ভীত

গ. অতিষ্ঠ— উত্ত্যক্ত; ঘ. নিরীহ—শান্ত; ঙ. সভা—বৈঠক।

মন্তব্য

শেয়ার
পূর্ববর্তী নিবন্ধচাকা এল কেমন করে?
পরবর্তী নিবন্ধ